ওয়েবসাইট কি? কেন প্রয়োজন? কিভাবে কাজ করে?

বর্তমান বিশ্বে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যাপক একটি বিপ্লব শুরু হয়েছে। ঘর থেকে শুরু করে শিক্ষা, রাজনীতি, সংস্কৃতি, অর্থনীতি চিকিৎসা, প্রতিটি ক্ষেত্রেই তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির ভূমিকা কোন তুলনা চলে না। কিন্তু এই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি যাত্রা শুরু হয়েছিল ডাটা নিউমেরিক Numeric ক্যালকুলেশন, ডাটা অ্যানালাইসিস ও তথ্য সংরক্ষণের প্রয়োজন থেকে। কিন্তু বর্তমানে সময়ে এর ব্যাপকতা এমন এক পর্যায়ে এসে দাড়িয়েছে যে, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির মানব সভ্যতার কর্মযজ্ঞের প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই এখন এই প্রযুক্তির অবিচ্ছেদ্য ব্যবহার হচ্ছে। বর্তমানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যাপকতায় এর সাথে আমরা সবাই কম- বেশি পরিচিত। যা আজ থেকে প্রায় দুইশত বছর আগেও চিন্তা করা যেত না। ঠিক এমন দুইটি বিষয় হলো ইন্টারনেট এবং ওয়েবসাইট। আজকের এই আর্টিকেলে মুলত আলোচনা করা হবে ওয়েবসাইট সম্পর্কে। কিন্তু ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে হলে প্রথমে জানতে হবে ইন্টারনেট কি?

ইন্টারনেট কি?

ইন্টারনেট কি আমরা প্রায় সবাই জানি, কিন্তু প্রকৃতক্ষে আসলে ইন্টারনেট আসলে কি আমরা সবাই প্রায় কমই জানি। আমরা প্রায় অধিকাংশ ইন্টারনেট বলতে বুঝি ফেইসবুকিং করা, অনলাইনে ভিডিও দেখা, অনলাইনে কেনাকাটা করা ইত্যাদি। কিন্তু আসলে কি ইন্টারনেট শুধুমাত্র কেনাকাটা করা, ফেইসবুকিং করা, ইউটিউবিং করা, মোটেও না সহজ ভাষায় ইন্টারনেট হলো, বিশ্বের প্রতিটি কম্পিউটার বা ডিভাইস সমূহের মধ্যে একটি সংযোগ স্থাপনকারী নেটওয়ার্ক অর্থাৎ সমগ্র বিশ্বে প্রতিটি কম্পিউটার ও ডিভাইস নেটওয়ার্কের সংযোগ স্থাপনের সমষ্টি হলো ইন্টারনেট। বলে রাখা ভালো যে ইন্টারনেট জনসাধারনের জন্য উন্মক্ত একটি নেটওয়ার্ক সিস্টেম।

ওয়েবসাইট কি?

ওয়েবসাইট হলো ইন্টারনেট সার্ভারে রাখা একটি ডিজিটাল প্লাটফর্ম এবং ওয়েব সার্ভারে রাখা ওয়েব পৃষ্ঠা, ছবি ,অডিও, ভিডিও , এবং আরো অনেক ডিজিটাল তথ্যের ভান্ডার যা ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রসেস করা হয়। প্রত্যেক ওয়েবসাইটের একটি নিজস্ব এবং ইউনিক একটি নাম থাকে। ওয়েবসাইট পরিচালনা করার জন্য দরকার হয় ডোমেইন। যদি একটু সহজ করে বলি তাহলে তাহলে একই ডোমেইনে অধীনে একধাধিক ওয়েব পেইজের সমষ্ঠিই হলো ওয়েবসাইট। ওয়েবসাইট হলো ইন্টারনেট জগতে আপনার একটি বিজনেস প্লাটফর্ম বা প্রতিষ্ঠান, বা আপনার কোন শখ,বা কোন জরুরী বিষয় সারা বিশ্বের লোকদের মাঝে তুলে ধরার একটি ইউনিক মাধ্যম। যদি ভেবে থাকেন ওয়েবসাইট হলো শুধু কিছু যন্ত্র বা ডিভাইসের সংযোগ দ্বারা তৈরি সর্ববৃহৎ নেটওয়ার্ক বা শুধুমাত্র একটি বিজনেস প্লাটফর্ম তাহলে আপনার ধারনাটি ভূল। ওয়েবসাইট শুধু কিছু যন্ত্র বা ডিভাইসের সংযোগ দ্বারা তৈরি সর্ববৃহৎ নেটওয়ার্কই না, বরং ইন্টারনেট এখন পৃথিবীর সর্ববৃহৎ তথ্যভান্ডার, অন্যতম জ্ঞানের উৎস ও যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যমও বটে।

একটি ওয়েবসাইট কেন প্রয়োজন?

একটি ওয়েবসাইট কেন প্রয়োজন? তা বিস্তারিত বলে বুঝানো প্রায় অসম্ভব তবে আপনি যদি চান সারাবিশ্বে আপনার পরিচয় তুলে ধরতে এবং আপনার প্রতিষ্ঠান বা ব্যবসা সম্পর্কে সারাবিশ্বের মানুষ জানুক এবং আগ্রহ প্রকাশ করুক তাহলে ওয়েবসাইটের কোন বিকল্প নেই। উদাহরন স্বরুপ কেউ যদি চায় সে সারা পৃথিবী ভ্রমন করবে কিন্তু সেটা তার পক্ষে সম্ভব না। আবার আপনি যদি চান আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রচার করবেন সারা বিশ্বব্যাপী সেটাও সম্ভব না। তাই আপনার এমন একটি মাধ্যম প্রয়োজন যার মাধ্যমে আপনার প্রতিভা, আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন ছড়িয়ে দিতে পারবে সারাবিশ্বের প্রতিটি আনাচে-কানাচে। আর সেই একমাত্র মাধ্যমটি হলো ওয়েবসাইট যাতে থাকবে ,

১. আপনার প্রতিষ্ঠানের পরিচিতি।
২.আপনার প্রতিষ্ঠানের কাজের ধরনের প্রকৃতি।
৩.আপনার প্রডাক্টের কোয়ালিট, সার্ভিস কেমন, ক্লাইন্ট রিভিউ, অর্ডার প্রসেসিং সিস্টেম, ক্লাইন্ট কিভাবে আপনার সাথে যোগাযোগ করবে ইত্যাদি।

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ব্যবস্যা প্রতিষ্ঠান মানুষের মানুষের চাহিদা তুলে ধরতে সক্ষম। ওয়েবসাইটের এর দ্বারা আপনার প্রতিষ্ঠান পরিচিত পাবে সারাবিশ্বে এবং আপনি দেখবেন লাভের উজ্জ্বল মুখ। তাছাড়াও ওয়েব-সাইটের মাধ্যমে অনেক পদ্ধতিতে ভালো উপার্জন করতে পারবেন।

একটি ওয়েবসাইট থেকে কি ধরনের সুযোগ সুবিধা পেতে পারেন?

ওয়েব-সাইটের সুবিধার কথা বলে শেষ করা যাবে না। সব গুলো সুযোগ সুবিধা গুলো এনালাইজ করে (১০)টি পয়েন্ট উল্লেখ করছি,।

১.একটি ওয়েব সাইট দিন রাত (২৪) ঘন্টা ক্লান্তিহীনভাবে গ্রাহকদের সার্ভিস দিয়ে থাকে যা একজন মানুষের পক্ষে প্রায় অসম্ভব।

২. ওয়েব সাইট থেকে স্বল্প সময়ে যেকোন তথ্য সংগ্রহ করা যায় যেমন , পিডিএফ ফাইল, অডিও ভিডিও বিভিন্ন ছবি, এনিমেশান ভিডিও ইত্যাদি।

৩. ওয়েব সাইটে নিজের ইচ্ছেমত অডিও, ভিডিও, এনিমেশান ভিডিও, যুক্ত করা যায়।

৪.খুব স্বল্প খরচে কোন প্রতিষ্ঠান একটি ওয়েব-সাইট খুলে তার ব্যবসার প্রচার প্রসার করতে পারে।

৫. কোন প্রতিষ্ঠান যদি চায় তার প্রতিষ্ঠানের সার্ভিস পণ্যের গুনগত মান সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়ুক তাহলে ওয়েবসাইটের বিকল্প কিছু হতে পারে না।

৬.ওয়েবসাইট প্রিন্ট মিডিয়া চেয়ে তুলনামুলক ভাবে অনেক কম খরচে আকর্ষণীয় এবং ইউজার ফ্রেন্ডলী করা যায়।

৭.ওয়েবসাইট একটি সার্বক্ষণিক তথ্য যোগাযোগ করার মাধ্যম। আপনি যদি গ্রাহকের সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ করতে চান ওয়েবসাইটের বিকল্প কিছু হতে পারেনা।

৮.বড় বড় আর্থিক ব্যাবসা প্রতিষ্টান ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ভাবে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে পরিচিতি করতে এবং আর্থিক লেনদেনের গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে ওয়েবসাইটকে গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করে থাকে।

৯. একটি দেশের সরকারি ওয়েবসাইট থাকার কারনে সেই দেশের মানুষ সেই দেশ সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করতে পারে। যেমন পাবলিক পরিক্ষার রেজাল্ট, ভূমি ও জমি-জমা সম্পর্কে তথ্য, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ইত্যাদি

১০. বর্তমানে সবাই ই-কর্মাস বা অনলাইন কার্যক্রমের দিকে ঝুকে পড়ছে , ম্যাজিক আদান-প্রদান ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে পড়ছে। অনলাইন জগতে আপনার পরিচিতি, আপনার প্রতিষ্ঠানের পরিচিতি অত্যন্ত জরুরী। একটি চমৎকার ওয়েবসাইট সেই কাজটি অনেকটাই এগিয়ে রাখবে।

কি ধরনের ওয়েব-সাইট হতে পারে?

কতধরনের ওয়েব-সাইট হতে পারে তা নিরুপূন করা বেশ কষ্ঠসাধ্য ব্যপার তবে আপনাদের সুবিধার্থে কিছু ওয়েবসাইটের প্রকৃতি উল্লেখ করা হলো,

১. ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট।

২.ডাইনামিক ওয়েবসাইট।

৩. জব-পোর্টাল ওয়েবসাইট।

৪. তথ্য এনালাইটিক্যাল ওয়েবসাইট।

৫.প্রতিষ্ঠান পরিচিতিমুলক ওয়েবসাইট।

৬. রিলিজিয়াস ওয়েবসাইট।

৭.বিনোদন মুলক ওয়েবসাইট।

৮. অফিস ম্যানেজমেন্ট ওয়েবসাইট।

৯. অনলাইন ডিরেক্টরী ওয়েবসাইট।

১০. প্রশ্ন-উওর ওয়েবসাইট।

ওয়েবসাইটের সংখ্যা গুনে শেষ করা যাবেনা। প্রতিদিন অসংখ্য ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে। ওয়েবসাইটের কোন বাঁধাধরা শ্রেণিবিভাগ বা ধরণ নেই। প্রাতিষ্ঠানিক, ব্যক্তিগত, শিক্ষা, চিকিৎসা, গবেষণা ইত্যাদি কাজে ওয়েবসাইট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশে সহ বিশ্বের সকল দেশে ওয়েবসাইট এর চাহিদা বাড়ছে। প্রয়োজনের ধরণ, সেবা বা অন্যান্য বিষয়ের উপরে নির্ভর করে সাধারণত ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়ে থাকে। ইন্টারনেট পুরো বিশ্বকে নিয়ে এসেছে হাতের মুঠোয় একটি ওয়েবসাইট আপনাকে এবং আপনার প্রতিষ্ঠানকে দাড় করিয়ে দিতে সক্ষম বিশ্বের খোলা দরবারে।

This website uses cookies to ensure you get the best experience on our website.